প্রশংসিত কোম্পানির জায়গা ধরে রেখেছে অ্যাপল

টানা দুই বছর ধরে বিশ্বের সবচেয়ে প্রশংসিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে মার্কিন প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠান অ্যাপল। ৩ হাজার ৭৫০ জন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের নির্বাহী, পরিচালক ও বিশ্লেষকের মধ্যে পরিচালিত এক সমীক্ষার ভিত্তিতে এ ফল প্রকাশ করেছে ফরচুন সাময়িকী। তবে প্রযুক্তি বিশ্লেষকেরা ধারণা করছেন, আগামী বছরে তালিকায় বদল আসতে পারে। এর কারণ হচ্ছে, গত দুই মাসে অ্যাপলের আইফোন বিক্রি কমে যাওয়ায় এর আর্থিক অবস্থায় নাটকীয় পরিবর্তন ঘটেছে। ফোর্বস অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গত বছরে অ্যাপলের শেয়ারের দাম যখন ঊর্ধ্বমুখী ছিল, সেই অক্টোবর ও নভেম্বরে ওই জরিপ করা হয়েছিল। তবে এরপর চতুর্থ প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশের আগেই অ্যাপল তাদের আয়ের পূর্বাভাস কম দেখায়। এ বছরের জানুয়ারিতে অ্যাপলের শেয়ারের দাম কমে গেছে। ফরচুনের বিশেষজ্ঞ ডগলাস ইয়াম বলেছেন, গত বছর তাঁরা ভালো করেছেন। পরের বছর কী হয়, দেখা যাক।

শীর্ষ প্রশংসিত কোম্পানির মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে আমাজন। প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠান হিসেবে তালিকার ছয় নম্বরে রয়েছে মাইক্রোসফট। তালিকার সাতে আছে গুগলের মূল প্রতিষ্ঠান অ্যালফাবেট। তবে শীর্ষ ১০-এর তালিকায় ঠাঁই পায়নি ফেসবুক। তালিকায় ৪৪ নম্বরে ফেসবুক। গত বছরে ফেসবুকের অবস্থান ছিল ১২তম। ২০১৮ সালে প্রাইভেসি নিয়ে উদ্বেগের কারণে ফেসবুকের ওপর আস্থা কমেছে ব্যবহারকারীদের।

তালিকায় টানা দ্বিতীয়বারের মতো দুই নম্বরে জায়গা ধরে রেখেছে আমাজন। ২০১৯ সালে তারা তালিকার শীর্ষে উঠে আসতে পারে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকেরা। অ্যাপল যদি আবার ঘুরে দাঁড়াতে পারে, তবে আমাজনের জন্য তা কঠিন হবে। গুগল গত বছর তিনে থাকলেও এ বছর সাতে নেমে গেছে। তালিকায় সাত থেকে এগিয়ে ছয় নম্বরে স্থান পেয়েছে মাইক্রোসফট। ফরচুনের তালিকায় চীনা প্রতিষ্ঠানগুলোর আধিপত্য দেখা যায়নি। আলিবাবা স্থান পেয়েছে তালিকার ৩৪ নম্বরে। অবশ্য জরিপে অংশ নেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর অধিকাংশ কর্মকর্তা যুক্তরাষ্ট্রের। তাই চিত্রটা এ রকম হতে পারে।

ঢাকা আবহাওয়া
০১ জানুয়ারি, ১৯৭০
ফজর
জোহর
আসর
মাগরিব
ইশা
সূর্যাস্ত : ৬:০৬সূর্যোদয় : ৫:৪৪

আর্কাইভ