গেমের বাজারের শীর্ষে ফোর্টনাইট

মানুষ এখন গেম খেলছে বেশি। ২০১৮ সালটি গেম নির্মাতা ও প্রকাশকদের জন্য ছিল দারুণ একটি বছর। গত বছরে সবচেয়ে বেশি আয় করার গেমের মধ্যে শীর্ষে স্থান পেয়েছে ফোর্টনাইট। গেমের বাজার বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান সুপারডাটার তথ্য অনুযায়ী, গত বছরে ফোর্টনাইট নির্মাতা এপিক গেমস শুধু এ গেমটি থেকে ২৪০ কোটি মার্কিন ডলার মুনাফা করেছে। বিনা মূল্যের গেম হিসেবে ফোর্টনাইট বাজারের শীর্ষস্থানে উঠে এসেছে।

দলবদ্ধভাবে খেলে শেষ পর্যন্ত টিকে থাকার লক্ষ্য নিয়ে আলোচিত গেম ফোর্টনাইট ব্যাটল রয়্যাল। গেমের লবিতে ম্যাচ শুরুর আগে সবাইকে একটি দ্বীপে একত্র করা হবে। এরপর পর্যায়ক্রমে ফোর্টনাইটের মূল দ্বীপে উড়ন্ত বাসে করে সবাইকে নিয়ে যাওয়া হবে। একে অপরকে দমন করে টিকে থাকার জন্য ফোর্টনাইট দ্বীপে থাকা বাড়িঘর ও অপরিচিত জায়গা থেকে অস্ত্রশস্ত্র খুঁজে নিতে হবে। এভাবেই ম্যাচ এগোবে আর কমবে গেমার।

সুপারডাটার তথ্য অনুযায়ী, ফোর্টনাইটের ৩৪ শতাংশ গেমার কেনাকাটা করেন, যাতে যুদ্ধ এড়ানো যায়। গেমে আয়ের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে নেক্সনের ডানজিওন ফাইটার অনলাইন। তারা ১৫০ কোটি মার্কিন ডলার আয় করেছে। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে রাওট গেমস ও টেনসেন্টের লিগ অব লিজেন্ডস। তাদের আয় ১৪০ কোটি মার্কিন ডলার। পিসি ও কনসোল গেমের বাজার দখল করেছে পিইউবিজি বা প্লেয়ার আননোনস ব্যাটলগ্রাউন্ডস। এতে আয় হয়েছে ১০৩ কোটি মার্কিন ডলার, যা বিনা মূল্যের গেম ফোর্টনাইটের চেয়ে অনেক কম।

প্রিমিয়াম বিভাগে আয়ের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থান রয়েছে ফিফা ১৮। এ গেমের আয় ৭৯ কোটি মার্কিন ডলার। তৃতীয় স্থানে থাকা গ্রান্ড থেপ্ট অটো ভির আয় ৬২ কোটি ৮০ লাখ টাকা। ২০১৮ সাল গেমের পাশাপাশি গেম স্ট্রিমিংয়ের জন্য ভালো সময় ছিল। গেম স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম হিসেবে শীর্ষে রয়েছে টুইচ। তাদের আয় ১৬০ কোটি। এর পরেই অবস্থানে রয়েছে ইউটিউব। সুপারডাটার বিশ্লেষকেরা ধারণা করছেন, ২০১৯ সালে গেমিং প্ল্যাটফর্ম সফলতা পেতে একাধিক প্ল্যাটফর্ম বেছে নেবে গেম নির্মাতারা।

ঢাকা আবহাওয়া
০১ জানুয়ারি, ১৯৭০
ফজর
জোহর
আসর
মাগরিব
ইশা
সূর্যাস্ত : ৬:০৬সূর্যোদয় : ৫:৪৪

আর্কাইভ