বাংলাদেশের ডিজিটাল বিকাশ তরান্বিত করতে টেক মাহিন্দ্রা

দেশের অন্যতম শীর্ষ ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন, কনসাল্টিং এবং বিজনেস রি-ইঞ্জিনিয়ারিং সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান টেক মাহিন্দ্রা; বাংলাদেশের আইটি ইন্ডাস্ট্রিতে ইতিমধ্যে যাদের উল্লেখযোগ্য উপস্থিতি রয়েছে, বাংলাদেশের সরকারি এবং বেসরকারি সেক্টরে ডিজিটাল বিকাশের জন্য কাজ করবে। টেক মাহিন্দ্রা তাদের উদ্ভাবনী পরবর্তী প্রজন্মের টেকনোলোজি সল্যুশনস এবং সার্ভিস অফারের সাহায্যে দেশের উদীয়মান আইটি মার্কেটের সম্ভাব্য ব্যবসায়িক সুবিধাসমূহ চিহ্নিত করার পরিকল্পনা করছে। 

টেক মাহিন্দ্রা বর্তমানে বাংলাদেশের  টেলিকম এবং বিএফএসআই (ব্যাংকিং, আর্থিক সেবা ও বীমা) খাতে গ্রাহকদের বিভিন্ন ধরণের পেশাদার সেবা প্রদান করে এবং আর্থিক খাতে বৃহৎ পরিসর অপারেশন পরিচালনাও করে থাকে। প্রতিষ্ঠানটি সম্প্রসারণ কৌশলের অংশ হিসাবে, সরকারি ও বেসরকারি খাতের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আইসিটি (তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি) ও সরকারী ব্যবসায়ের উপর মনোযোগ দিয়ে ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন প্রজেক্টের মাধ্যমে নতুন রাজস্ব প্রবাহ তৈরীতে গুরুত্ব দিচ্ছে।

টেক মাহিন্দ্রার সভাপতি, কর্পোরেট এ্যাফেয়ার্স, সুজিত বকসি বলেন, “শক্তিশালী দেশীয় চাহিদা এবং সমৃদ্ধ অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা দ্বারা চালিত, বাংলাদেশ সার্ক অঞ্চলের সবচেয়ে উজ্জ্বল অর্থনীতির মধ্যে একটি হিসাবে আবির্ভূত হয়েছে। দ্রুত ক্রমবর্ধমান ইন্টারনেট সংযোগ, স্মার্ট মোবিলিটি এবং ডিজিটাল মিডিয়ার বিকাশ এই ক্রমবর্ধমান যোগাযোগ ব্যবস্থার সমৃদ্ধিকে আরো তরান্বিত করেছে। টেক মাহিন্দ্রাতে আমরা মার্কেটের শক্তিশালীপ্রবৃদ্ধির সম্ভাবনায় বিশ্বাসী এবং ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ গড়ে তোলার ক্ষেত্রে আমরা আমাদের ডিজিটাল এক্সপারটাইজ লিভারেজ করার ক্ষেত্রেও আশাবাদী”।
 
তিনি আরো বলেন, “আগামী কয়েক বছরে বাংলাদেশের অর্থনীতিকে টিকিয়ে রাখতে চাকরি তৈরি, বিনিয়োগ বৃদ্ধি, রপ্তানি বৈচিত্র্য এবং মানবিক মূলধন নির্মাণের দিকে প্রধানত লক্ষ্য রাখতে হবে। 'বিকশিত বাংলাদেশ'- এর এই ধারণাকে আমরা স¤পূর্ণ সমর্থন করি। বিকশিত বাংলাদেশ- এর এই ধারণা দ্রুত কার্যকর করতে বিভিন্ন অঞ্চলের স্থানীয় ব্যবসায়ের সাথে যুক্ত হয়ে স্থানীয় প্রতিভার সদ্ব্যবহার এবং সঠিক দিক নির্দেশনার মাধ্যমে তাদেরকে কাজে লাগিয়ে যেন এ বিষয়ে আমরা দেশের সহায়ক হতে চাই”।

৭% এরও বেশি জিডিপি (গ্রস ডোমেস্টিক প্রোডাক্ট) বৃদ্ধির হার, মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি এবং উন্নত সামাজিক সূচকের কারণে বাংলাদেশ সাম্প্রতিক বছরগুলিতে এশিয়ার সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য সাফল্যের গল্পগুলির মধ্যে একটি হয়ে উঠেছে। পরবর্তী পাঁচ বছরে জিডিপি হার ৯% বৃদ্ধি, বাংলাদেশের গতিশীল ও ক্রমবর্ধমান অর্থনীতি, সম্ভাবনাময় আইটি বাজার এবং ভারত, চীন ও আসিয়ান বাজারের পাশে কৌশলগত অবস্থান, টেক মাহিন্দ্রাকে তার অপারেশন প্রসারিত করার জন্য উপযুক্ত সুযোগ দেয় আর পাশাপাশি সার্ক অঞ্চল থেকে রাজস্ব আয়ও বৃদ্ধি পায়। টেকএমএনক্সট চার্টারের অংশ হিসাবে, টেক মাহিন্দ্রা বাংলাদেশের গ্রাহকদের দ্রুত ক্রমবর্ধমান চাহিদাগুলি পূরণ করতে ব্লকচেইন, ৫জি ভবিষ্যতের টেলিকম, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, অটোমেশন, রোবোটিক্স এবং ইন্টারনেট অফ থিংসগুলির মতো অত্যাধুনিক ডিজিটাল প্রযুক্তির ব্যবহারে বিশ্বব্যাপী দক্ষতা অর্জন করতে আগ্রহী।

টেক মাহিন্দ্রার ইতিমধ্যে তার সাবসিডিয়ারি মাহিন্দ্রা কমভীভার সাথে বাংলাদেশে একটি বড় উপস্থিতি রয়েছে। মাহিন্দ্রা কমভীভার ¯প্যানিং মোবাইল ফাইনান্স, কনটেন্ট, ইনফোটেইনমেন্ট, মেসেজিং এবং মোবাইল ডেটা সল্যুশনের একটি বিস্তৃত পোর্টফোলিও রয়েছে। ২১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের মাহিন্দ্রা গ্রুপের অংশ,  গত ২০ বছরে বাংলাদেশের বাজারে বিভিন্ন ক্ষেত্র জুড়ে একটি প্রধান প্রতিষ্ঠান, টেক মাহিন্দ্রার লক্ষ্য হলো তার মূল প্রতিষ্ঠানের পদক্ষেপগুলো গ্রহণের মাধ্যমে এদেশে তাদের অপারেশন বৃদ্ধি করা। 

ঢাকা আবহাওয়া
০১ জানুয়ারি, ১৯৭০
ফজর
জোহর
আসর
মাগরিব
ইশা
সূর্যাস্ত : ৬:০৬সূর্যোদয় : ৫:৪৪

আর্কাইভ